বিমান ছিনতাই নাটকের অবসান- ছিনতাইকারী কামন্ডো অভিযানে নিহত

ঢাকা থেকে দুবাইগামী বাংলাদেশ বিমানের নতুন উড়োজাহাজ ময়ূরপঙ্খী ছিনতাইয়ের চেষ্টাকারী সন্দেহভাজন ব্যক্তি সেনা কমান্ডো অভিযানে নিহত হয়েছেন।

ঘটনার পর রাত ৯টার দিকে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে সেনাবাহিনী জানায়, নিহত ব্যক্তির নাম মাহাদি। তার শেষ কথা ছিল তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিল । তার হাতে একটি পিস্তল ছিল।

রোববার রাত পৌনে ৯টার দিকে চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান চট্টগ্রাম সেনানিবাসের জিওসি মেজর জেনারেল মতিউর রহমান।

ছবিঃ ইত্তেফাক

তিনি জানান, উড়োজাহাজটি ছিনতাইয়ের চেষ্টা হয়েছিল। ২৫ থেকে ২৬ বছর বয়সী এক যুবক আমাদের সঙ্গে কথা বলে। সে প্রধানমন্ত্রী ও তার স্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চেয়েছিল। আমরা তাকে আত্মসমর্পণ করতে বকি, কিন্তু সে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে। এ সময় কমান্ডো অভিযানে ওই যুবক গুলিবিদ্ধ হয় এবং পরে মারা যায়।

এর আগে বিকালে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের দিকে যাত্রা করে বিমানের বিজি-১৪৭ ফ্লাইটটি। সেখান থেকে দুবাই যাওয়ার কথা ছিল। চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পর বিমান থেকে নিরাপদে সব যাত্রীদের নামিয়ে দেওয়া হয়। এরপরই রানওয়েতে বিমানটি ঘিরে ফেলে সেনাবাহিনী, র‌্যাব ও পুলিশ।

বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এম নাঈম হাসান জানান, ঘটনার পর শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উড়োজাহাজ চলাচল বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। অভিযান শেষে এখন বিমান ওঠানামা স্বাভাবিক হয়েছে।